পেকুয়ায় ঘাতকের হাতে নিহত আয়েশার জন্য মাদ্রাসায় শোকসভা

PicsArt_11-24-03.02.53.jpg

মোঃ ফারুক,পেকুয়া(২৪ নভেম্বর) :: কক্সবাজারের পেকুয়ায় ঘাতকের হাতে নিমর্মভাবে নিহত আয়েশার মৃত্যুতে শোকসভা করেছে শাহ রশিদিয়া আলিম মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

এসময় প্রধান ঘাতক ওমর ফারুককে দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবী ওঠে মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের পক্ষ থেকে।

রবিবার দুপুর ১টা মাদ্রাসা হল রুমে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন মগনামা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিম।

শান্তিপূর্ণ শোক সভায় সংহতি জানিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন পেকুয়া থানার ওসি কামরুল আজম।

এসময় সভাপতি ওয়াসিম বলেন, একজন শিক্ষার্থীকে নিমর্মভাবে খুন করা হয়েছে। তাকে আমরা আর পাবনা। কিন্তু খুনির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। নুসরাত হত্যা মামলার দৃষ্টান্ত নিয়ে আমাদের ওসি সাহেবকে তার দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করতে হবে।

এ হত্যাকান্ড কিছুতেই মেনে নেওয়া যায়না। তারপরও হত্যাকান্ডের থেকে অদ্যাবধি আমরা থানা প্রশাসনের সহযোগিতা পেয়েছি। ঘটনায় জড়িত দুইজনকে দ্রুত গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রধান আসামীকেও দ্রুত গ্রেপ্তার করবে বলে আমরা আশাবাদি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওসি কামরুল আজম বলেন, আপনাদের শান্তিপূর্ণ এ প্রতিবাদে আমি সংহতি জানায়। আমি আপনাদের জানাতে চাই পেকুয়ায় আপরাধীদের কোন স্থান নাই। হযতোবা অপরাধী থাকবে নয়তো পুলিশ থাকবে। ইতোমধ্যে তা আপনারা দেখেছেন। আয়েশার হত্যার ঘটনায় দ্রুত মামলা রুজু হয়েছে। দুই আসামী আটক হয়েছে।

প্রধান আসামী বাংলাদেশের কোন গর্তের ভিতর লুকিয়ে থাকলেও সেখান থেকে টেনে বের করা হবে। তার পরিণতি তাকেই ভোগ করতে হবে।

এসময় মাদ্রাসার প্রাক্তণ শিক্ষার্থী, বর্তমান শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবক ও নিহত আয়েশার পিতা জামাল হোসেন বক্তব্য রাখেন।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri