ইউরোপা লিগে ইংলিশ ক্লাবদের বিপর্যয়

uropa.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(২৯ নভেম্বর) :: সময়টা এমনিতেই ভালো যাচ্ছে না ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও আর্সেনালের। প্রিমিয়ার লিগে দুদলই পয়েন্ট টেবিলে বেশ বাজে অবস্থায় আছে। ১৩ ম্যাচ শেষে আর্সেনাল ৮ ও ম্যানইউ আছে ৯ নম্বর অবস্থানে। এই দুই দলের বাজে অবস্থা অবশ্য কেবল প্রিমিয়ার লিগেই থেমে নেই।

এবার ইউরোপা লিগেও হারের মুখ দেখল ইংল্যান্ডের এই দুই জায়ান্ট ক্লাব। কাকতালীয়ভাবে দুদলের হারের ব্যবধানও আবার একই। এফসি আস্তানার বিপক্ষে শুরুতে এগিয়ে গিয়েও ম্যানইউ হেরেছে ১-২ গোলে। একই ব্যবধানে এইনট্রাকট ফ্রাঙ্কফুর্টের বিপক্ষে হেরেছে আর্সেনালও। গানারদের জন্য এই হারের ধাক্কা এতটাই বড় ছিল যে কোচ এমেরি উনাইকে বরখাস্ত করেছে দলটির ম্যানেজমেন্ট।

এদিন অন্য ম্যাচগুলোতে অবশ্য জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ফেভারিটরা। ইস্তাম্বুলকে তাদের মাঠে ৩-০ গোলে হারিয়েছে এএস রোমা, রেনের বিপক্ষে সেলটিকের জয় ৩-১ গোলের ব্যবধানে এবং অন্য ম্যাচে ইয়াং বয়েজকে ২-১ গোলে হারিয়েছে এফসি পোর্তো।

অখ্যাত আস্তানার মাঠে নিয়মিত একাদশে বেশ পরিবর্তন আনেন ম্যানইউ কোচ ওলে গুনার সোলশার। শুরুতে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণেও ছিল ‘রেড ডেভিল’রা। দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে মাঠে নামলেও আধিপত্য বিস্তার করেই খেলতে শুরু করে ম্যানইউ। ১০ মিনিটে লক্ষ্যভেদ করে দলকে লিডও এনে দেন জেসে লিনগার্ড। এই লিড ধরে রেখে প্রথমার্ধ পার করে দেয় ম্যানইউ।

বিরতির পর অবশ্য ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ মিস করেন ম্যানইউ ফুটবলার চং। এরপর দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে কাজাখস্তানের ক্লাবটি। ৫৫ মিনিটে শোমকোর গোলে ম্যাচে সমতা ফিরিয়ে আনে আস্তানা। ৭ মিনিট পর ম্যাচে প্রথমবারের মতো লিড নেয় আস্তানা।

বের্নার্দের আত্মঘাতী গোলেই মূলত এগিয়ে যায় ক্লাবটি। এরপর চেষ্টা করেও আর সমতা ফেরাতে পারেনি ম্যানইউ। মাঠ ছাড়তে হয় হার নিয়ে। এ হার নিয়েও অবশ্য শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে ম্যানইউ।

ইউরোপার আরেক ম্যাচে ঘরের মাঠ এমিরেটসে এনট্রাকট ফ্রাঙ্কফুর্টের কাছে হেরে গেছে আর্সেনাল। ম্যানইউর মতো তারাও এ ম্যাচের শুরুতেই গোল করে। কিন্তু কামাদার জোড়া গোলে শেষ পর্যন্ত হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় আর্সেনালকে।

নিজেদের মাঠে ৫৮ শতাংশ বল দখলে রাখে আর্সেনাল। বিরতিতে যাওয়ার আগে গোলও আদায় করে নেয় তারা। অবশ্য ফ্রাঙ্কফুর্টও এদিন বেশ ভালোভাবে টেক্কা দেয় প্রিমিয়ার লিগ জায়ান্টদের। প্রথমার্ধে না পারলেও দ্বিতীয়ার্ধে দারুণভাবে ম্যাচে ফিরে আসে তারা। ৫৫ মিনিটে প্রথমে দলকে সমতায় ফেরান কামাদা। পরে ৬৪ মিনিটে ফের লক্ষ্যভেদ করে ব্যবধান ২-১ করেন এই জাপানি ফুটবলার। তার করা দুই গোলই শেষ পর্যন্ত ম্যাচের ব্যবধান গড়ে দেয়। ম্যাচে হারলেও ম্যানইউর মতো আর্সেনালও আছে গ্রুপের শীর্ষে।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri