পেকুয়ায় মাকে পিটিয়ে স্বর্ণ লুট করল ছেলে

wmn-trc-1.jpg

নাজিম উদ্দিন,পেকুয়া(৪ ডিসেম্বর) :: পেকুয়ায় মাকে পিটিয়ে স্বর্ণালংকার লুট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় মাকে উদ্ধার করতে গিয়ে অপর ১ ভাইকেও পিটিয়ে জখম করেছে। ঘুষিতে ভাইয়ের মুখমন্ডলের একটি দাঁত উপড়ে ফেলে।

স্থানীয়রা বৃদ্ধ মা ও ভাইকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সম্পত্তির বন্টন নিয়ে আপন ভাইদের মধ্যে দু’দফা মারপিট হয়েছে।

২৮ নভেম্বর বিকেল ৩ টার দিকে ও এর ৩ দিন আগে ২৫ নভেম্বর বিকেল আড়াইটার দিকে দু’দফা এ ঘটনা হয়েছে উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের বামুলারপাড়া গ্রামে। আহত বৃদ্ধ মহিলার নাম সমেরাজ খাতুন (৭৫) ও তার ছেলে মোজার আহমদ (৫০)।
সমেরাজ খাতুন বামুলারপাড়া এলাকার মৃত মোহাম্মদ হোসেনের স্ত্রী।

স্থানীয় সুত্র জানায়, পৈত্রিক সম্পত্তির বন্টন নিয়ে মৃত মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে মোজার আহমদ গং ও আবছার আহমদ গংদের মধ্যে বিরোধ চলছিল।

এর সুত্র ধরে মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে আবছার আহমদসহ আরও ৩/৪ জন মিলে মাকে আটকিয়ে জোরপূর্বক সম্পত্তির বন্টন নামা সৃজন করতে চেষ্টা চালায়। এ সময় মা রাজি হননি। এক পর্যায়ে আবছার আহমদসহ উত্তেজিত লোকজন বৃদ্ধ মহিলা সমেরাজ খাতুনকে কিল, ঘুষি ও লাথি মেরে মাটিতে লুটিয়ে ফেলে।

এ সময় সমেরাজ খাতুনের গলায় থাকা ৮ আনা ওজনের স্বর্নের রকেট লুট করে। সমেরাজ খাতুনের ছেলে মোজার আহমদ মাকে উদ্ধার করতে ওই স্থানে পৌছে। উত্তেজিত লোকজন তাকে ঘুষি মেরে মুখমন্ডলের একটি দাঁত উপড়ে ফেলে।

সমেরাজ খাতুনের ছেলে মোক্তার আহমদ জানায়, তারা দু’দফা ঘটনা সংঘটিত করে। ১ম ঘটনায় আমরা রাজাখালী পরিষদে নালিশ দিয়েছি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হামলাকারীরা ২য় দফায় ফের ঘটনা সংঘটিত করে।

Share this post

PinIt
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri