buy Instagram followers
kayseri escort samsun escort afyon escort manisa escort mersin escort denizli escort kibris escort

কক্সবাজার জেলায় ২০২০ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় বসছে ২৮ হাজার ২১৫ শিক্ষার্থী

ssc-exam-2020-coxsbazar.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া(২ ফেব্রুয়ারি) :: ২০২০ সালের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি ও সমমানের) পরীক্ষা শুরু হচ্ছে ৩ ফেব্রুয়ারী সোমবার। এবার কক্সবাজার জেলায় এ পরীক্ষায় অংশ নেবে ২৮ হাজার ২১৫ শিক্ষার্থী। সোমবার সকাল ১০টা থেকে শুরু হবে পরীক্ষা।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের শিক্ষা শাখা সুত্রে জানা গেছে, জেলার মোট ৪৬টি পরীক্ষা কেন্দ্রের মধ্যে এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র ২৭ টি, দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্র ১৩টি এবং এসএসসি (কারিগরি/ভেকেশনাল) পরীক্ষা কেন্দ্র ৬ টি। তারমধ্যে, এসএসসি পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২০৬৮৩ জন। দাখিল পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৬৫৪৮ জন। এসএসসি (কারিগরি/ভেকেশনাল) পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৯৮৪ জন।

অপরদিকে এবছর চকরিয়া উপজেলার চারটি কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষা দেবেন ৫৪৭৭ জন ও দুইটি কেন্দ্রে দাখিল পরীক্ষা দেবেন ১৪৭৮জন ও (কারিগরি/ভেকেশনাল একটি কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছেন ১৮৫জন পরীক্ষার্থী।

শিক্ষা শাখা সুত্রে আরও জানা গেছে, পরীক্ষা কেন্দ্র ভিত্তিক এসএসসি পরীক্ষার্থীর সংখ্যা হলো-কক্সবাজার সদর উপজেলার (১) সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬১৪ জন, (২) ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬২৫ জন, (৩) কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮৯৯ জন, (৪) জাহানারা ইসলাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ঈদগাহতে ৬০১ জন, (৫) কক্সবাজার মডেল হাইস্কুলে ৯৪৫ জন, (৬) খুরুস্কুল উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭৪৮ জন। রামু উপজেলার (৭) রামু সরকারি খিজারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭৩৩ জন, (৮) রামু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫৮৮ জন।

চকরিয়া উপজেলার (৯) চকরিয়া সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৩৮৩ জন, (১০) চকরিয়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৩৬৮ জন, (১১) ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৭০ জন, (১২) চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠে ২২৫৬ জন।

যে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা জেলার সর্বোচ্চ। (১৩) কুতুবদিয়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪১৬ জন, (১৪) ধুরুং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৯৪ জন, (১৫) কুতুবদিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় ৫৪৭ জন।

মহেশখালী উপজেলার (১৬) মহেশখালী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬৩৩ জন, (১৭) কালামারছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮৩৮ জন, মাতারবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৯৪ জন, (১৮) মাতারবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৯৪ জন, (১৯) বড় মহেশখালী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩০৭ জন।

উখিয়া উপজেলার (২০) উখিয়া সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় ৯৬৯ জন, (২১) উখিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০৪০ জন, (২২) পালং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮২৩ জন।

টেকনাফ উপজেলার (২৩) টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪২২ জন, (২৪) আলী আছিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৭৪ জন, (২৫) এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫৬৪ জন।

পেকুয়া উপজেলার (২৬) পেকুয়া জিএমসি ইনস্টিটিউশনে ৫৪৮ জন, (২৭) পেকুয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮৮৪ জন।

অপরদিকে জেলার দাখিল পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কক্সবাজার সদর উপজেলার (১) ইসলামিয়া মহিলা কামিল মাদ্রাসায় ৪৮১ জন, (২) কক্সবাজার আদর্শ মহিলা কামিল মাদ্রাসায় ৫৩২ জন, (৩) ঈদগাহ আলমাসিয়া মাদ্রাসায় ৬১৮ জন।

রামু উপজেলার (৪) মেরুংলয়া রহমানিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় ৩৮২ জন, (৫) গর্জনিয়া ফয়জুল উলুম মাদ্রাসায় ১৫১ জন। চকরিয়া উপজেলার (৬) আনোয়ারুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসায় ১০২৮ জন, (৭) চকরিয়া আমজাদিয়া রফিকুল উলুম ৪৫০ জন।

মহেশখালী উপজেলার (৮) পুটিবিলা ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় ৫৩৫ জন, (৯) কালারমার ছরা মঈনুল ইসলাম আলিম মাদ্রাসায় ৩৯৩ জন। পেকুয়া উপজেলার একমাত্র কেন্দ্র (১০) পেকুয়া আনোয়ারুল উলুম আলিম মাদ্রাসায় ৪৬১ জন।

কুতুবদিয়া উপজেলার একমাত্র কেন্দ্র (১১) কুতুবদিয়া বড়ঘোপ ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় ৩৮৯ জন।

টেকনাফ উপজেলার একমাত্র কেন্দ্র (১২) রঙ্গিখালী দারুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসায় ৬১৬ জন। উখিয়া উপজেলার একমাত্র কেন্দ্র (১৩) রাজাপালং এম.ইউ ফাজিল মাদ্রাসায় ৫১২ জন।

এদিকে জেলায় ৬টি এসএসসি (কারিগরি/ভেকেশনাল) কেন্দ্রে ৯৮৪ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলার (১) কক্সবাজার টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে ২৫০ জন। রামু উপজেলার (২) রামু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ২৩০ জন, (৩) রামু টেক্সটাইল ইনস্টিটিউটে ১৮০ জন। মহেশখালী উপজেলার (৪) মহেশখালী আইল্যান্ড হাইস্কুলে ৮১ জন। চকরিয়া উপজেলার (৫) কিশলয় উচ্চ বিদ্যালয় ১৮৫ জন। উখিয়া উপজেলার (৬) নুরুল ইসলাম টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে সর্বনিম্ন পরীক্ষার্থী ৫৮ জন।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ আল আমিন পারভেজ বলেন, জেলার সকল পরীক্ষা কেন্দ্রে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা সমুহ সর্বোচ্চ নিরাপত্তা, সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে গ্রহনের জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রতিটি পরীক্ষা কেন্দ্রে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন। উপজেলা সমুহের পরীক্ষা কেন্দ্রে ইউএনও এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্ব পালন করবেন।

তিনি বলেন, পরীক্ষা কেন্দ্রে সবধরণের প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ছড়ানোর বিরুদ্ধে কঠোর প্রদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রে দায়িত্ব পালনে কারো কোন অবহেলা ও গাফিলতি সহ্য করা হবেনা। এছাড়া উপজেলা পর্যায়েও ইউএনও-দের সভাপতিত্বে পরীক্ষার প্রস্তুতি সভা ইতিমধ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কক্সবাজার জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ ছালেহ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পরীক্ষাকেন্দ্রে নকল ঠেকাতে প্রশাসনের পাশাপাশি বোর্ডের নিজস্ব পর্যবেক্ষক দলও থাকবে।পরীক্ষা শুরুর নির্ধারিত সময়ের ৩০ মিনিট আগে শিক্ষার্থীদের কেন্দ্রে যেতে হবে।

Share this post

PinIt
izmir escort bursa escort Escort Bayan
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri