buy Instagram followers
kayseri escort samsun escort afyon escort manisa escort mersin escort denizli escort kibris escort rize escort sinop escort usak escort trabzon escort

নিউইয়র্কে করোনাভাইরাসে চিকিৎসক সহ আরো ৭ বাংলাদেশির মৃত্যু

corona-newyork-dead-bangladeshi.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১৫ এপ্রিল) :: যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাস প্রাণ কেড়ে নিয়েছে শতাধিক বাংলাদেশির। এরমধ্যে আছেন চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, সাংবাদিক, ক্যাব চালক, বিক্রয়কর্মী, গৃহিনীসহ বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার প্রবাসী। নিউইয়র্কের বাংলাদেশি কমিউনিটি প্রতিদিনই শুনছে মৃত্যু সংবাদ।

এদিকে সর্বশেষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে আরো একজন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। ১৪ এপ্রিল বাংলা নববর্ষের প্রথমদিনে নিউ ইয়র্কের ব্রুকলিন হাসপাতালের মনোরোগ বিশেষজ্ঞ শামীম আল মামুন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

একই দিন আরো ছয় বাংলাদেশির মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে অন্তত ১৩৪ জন প্রবাসী বাংলাদেশি মারা গেলেন। মারা যাওয়া অন্যদের মধ্যে রয়েছেন এনাম উদ্দিন, বীণা মজুমদার, এম রহমান মুক্তা, রানা বেগম ও একজন নারী। তাৎক্ষণিকভাবে ওই নারীর পরিচয় জানা যায়নি।

লং আইল্যান্ডের নর্থ শোর হাসপাতালে চিকিৎসক শামীম আল মামুনের মৃত্যু হয়। তিনি সিলেট মেডিক্যাল কলেজের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। এ ছাড়া নিউ ইয়র্কে ১৪ এপ্রিল একদিনে ৩ হাজার ৭৭৮ জনের মৃত্যুর হিসাব যুক্ত হয়েছে। মোট মৃত্যুর সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। শুধু নগরীর পাঁচ বরোতেই ৭ হাজার ৯০৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

নগরীর মেয়র বিল ডি ব্লাজিও বলেছেন, প্রতিটি মৃত্যু বেদনার। হাসপাতালে ভর্তির হার কমে এলেও অসুস্থ মানুষের মৃত্যু হচ্ছে।

নগরীর অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা বেশি। কৃষ্ণাঙ্গ, হিস্পানিকসহ বাংলাদেশি জনবসতি এলাকা করোনার আতঙ্কের এলাকা হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। চিকিৎসা সুবিধা ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা বাড়ানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে করোনা আক্রান্ত নিউ ইয়র্কে বাংলা নববর্ষের প্রথমদিনে ছিল বিষাদের ছায়া। নজিরবিহীন একটি পরিবেশের মধ্য দিয়ে দিনটি কাটিয়েছেন প্রবাসীরা। কেউ কেউ ঘরের মধ্যে বৈশাখ বরণের পোশাক আশাক পড়ে ঐতিহ্যবাহী খাবার খেলেও, আসলে এই মৃত্যুপুরী জুড়ে ছিল শোকের আবহ। সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মোহাম্মদ আলী বাবুল কালের কণ্ঠকে জানিয়েছেন, এমন পরিবেশ কল্পনাও করা যায় না। গত বছরও নিউ ইয়র্কের প্রবাসী বাংলাদেশিরা উৎসাহ উদ্দীপনা আর প্রাণের স্পন্দনে কাটিয়েছেন দিনটি। অথচ এই বছরের দিনটিকে চেনাই যাচ্ছে না।

প্রবাসীদের অনেকে বলেছেন, নতুন বছরে তাদের প্রত্যাশা, প্রাণঘাতী করোনা চলে যাবে, পৃথিবী আবারো স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

নিউ ইয়র্কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল বিশেষ এই দিনে যে সকল বাংলাদেশি-আমেরিকান ভাই-বোনেরা করোনাভাইরাস আক্রমণে প্রাণ হারিয়েছেন তাদের আত্মার শান্তি কামনা করছে। কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা শোকসন্তপ্ত সকল পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছে এবং যারা অসুস্থ তাদের দ্রুত রোগমুক্তি কামনা করছে।

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে সবাই একটি ভয়াবহ সময় অতিক্রম করছে। বিশেষ করে নিউ ইয়র্ক সিটি প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মহামারীর কবলে জর্জরিত’। করোনাভাইরাস জনিত বিভিন্ন ধরনের হালনাগাদ তথ্য কনস্যুলেট জেনারেলের ওয়েবসাইট ও ফেসবুক পেইজে নিয়মিতভাবে প্রকাশ করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

যেকোনো জরুরি প্রয়োজনে কনস্যুলেট জেনারেলের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। (হটলাইন-১: ৬৪৬-৬৪৫-৭২৪২, হটলাইন-২: ৯২৯-৪২৪-২৭৫৮, Email: [email protected], website: www.bdcgny.org; Facebook page: https://www.facebook.com/gobdcgny/)। এসব নম্বরে যে কেউ যোগাযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন সাদিয়া ফয়জুননেসা।

Share this post

PinIt
izmir escort bursa escort Escort Bayan
scroll to top
en English Version bn Bangla Version
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri