buy Instagram followers
kayseri escort samsun escort afyon escort manisa escort mersin escort denizli escort kibris escort rize escort sinop escort usak escort trabzon escort

চকরিয়ায় অসাধু ব্যবসায়ীদের ব্যবসা থামাতে প্রশাসনের অভিযান : ১ লাখ ৩৮ হাজার টাকা জরিমানা আদায়

Pic-1Chakaria-14.05.2020-.jpg

মুকুল কান্তি দাশ,চকরিয়া(১৪ মে) :: গত ৮ মে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন ও পৌর প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সাথে দোকান মালিক ও ব্যবসায়ীদের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়। এসভায় ব্যবসায়ীরা কয়েকটি দাবি তুলে ধরেন। এর প্রেক্ষিতে দোকান মালিকরা দুই মাসের দোকান ভাড়া মওকুফ এবং দোকান কর্মচারীদের পৌরসভার মেয়র ঈদ উপলক্ষে উপহার সামগ্রী দেয়ার আশ^াস দেন।

পরে ওই সভায় উভয়পক্ষের মতামতের ভিত্তিতে ঈদ পর্যন্ত দোকান না খোলার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। কিন্তু তারপরও কিছু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী প্রশাসনের চোঁখ ফাঁকি দিয়ে প্রতিদিন ভোর সাড়ে ৪টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত দোকান খুলে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

প্রশাসনের কাছে এখবর পৌছানোর পর অভিযানে নামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত।

বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৪টা থেকে ৯টা পর্যন্ত চকরিয়া পৌরশহরের বিভিন্ন বিপনী বিতান, স্বর্ণের দোকান, শাড়ির দোকান, রড-সিমেন্টের দোকানসহ বিভিন্ন দোকানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়। এসময় ১৭টি মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ওইসব দোকান থেকে ১ লাখ ৩৮ হাজার ৫’শ টাকা জরিমানা এবং একজনকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালত।

চকরিয়া উপজেলা টেকনেশিয়ান এরশাদুল হক বলেন, ইতিমধ্যে চকরিয়ায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে গেছে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমন রোধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে। তেমনিভাবে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন রোধে চকরিয়ায় শপিং কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন ধরনের দোকান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় স্থানীয় প্রশাসন ও ব্যবসায়ীরা।

ওই সিদ্ধান্তে শুধুমাত্র মুদির দোকান ও ওষুধের দোকান ছাড়া অন্যসব দোকান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। কিন্তু তারপরও কিছু কিছু ব্যবসায়ী এসব সিদ্ধান্তকে বৃদ্ধাঙ্গলী দেখিয়ে এবং প্রশাসনের চোঁখ ফাঁকি দিয়ে প্রতিদিন ভোর ৪টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত ব্যবসা চালিয়ে আসছে। এই সংবাদ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ১ লাখ ৩৮ হাজার ৫’শ টাকা জরিমারা আদায় করা হয়েছে।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, আমাদের কাছে সবধরনের খবর থাকে। কে কি করছে সব খবর। ব্যবসায়ীরা মনে করেছিলো প্রশাসনকে ফাঁকি দিয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাবে। কিন্ত সেটা আমরা হতে দেবনা। কোন অবস্থাতেই দোকান খোলা চলবেনা। যারা এই নির্দেশ অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে ভবিষ্যতে আরো কঠোর হবে প্রশাসন। এখন জরিমানা করা হলেও পরে জেল দেয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, চকরিয়া বর্তমানে করোনা সংক্রমণ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনার সংক্রমন রোধ করতে গিয়ে আমার এসিল্যান্ড করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তারপরও কিছু অসাধু ব্যবসায়ী লোভের বর্শবর্তী হয়ে ব্যবসা করছে। প্রতিদিন ভোর থেকে রাত পর্যন্ত প্রশাসনের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা।

Share this post

PinIt
izmir escort bursa escort Escort Bayan
scroll to top
en English Version bn Bangla Version
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri