buy Instagram followers
kayseri escort samsun escort afyon escort manisa escort mersin escort denizli escort kibris escort rize escort sinop escort usak escort trabzon escort

অভিনেতা অপূর্বর দ্বিতীয় সংসারও ভাঙল

apurbo_0.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১৭ মে) :: অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর দ্বিতীয় সংসারও ভেঙে গেল। স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতির সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় বিয়ের ৯ বছরের মাথায় তাদের দাম্পত্যজীবনে বিচ্ছেদ ঘটেছে।

আজ রোববার বিকেলে সংসার ভাঙার খবর নিশ্চিত করেছেন নাজিয়া হাসান অদিতি। তিনি বলেন, ‘অপূর্বর সঙ্গে আমার ডিভোর্স হয়েছে এটা সত্য। এর বেশি কিছু বলতে চাই না।’

অপূর্ব-অদিতির দাম্পত্য জীবনে এক পুত্র সন্তান রয়েছে।

২০১০ সালের ১৯ আগস্ট অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে বিয়ে করেছিলেন অপূর্ব। পরের বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি তাদের ডিভোর্স হয়। একই বছরে ১৪ জুলাই অপূর্ব পারিবারিক পছন্দে নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন।

যা বললেন সাবেক স্ত্রী নাজিয়া

অপূর্ব, আয়াশ ও নাজিয়া

এমন একটি গুঞ্জন গেল তিনমাস বাতাসে ভাসলেও ঠিক সুরাহা হচ্ছিলো না। কারণ, এ বিষয়ে দুজনেই মুখ বন্ধ রেখেছেন সচেতনভাবেই। অবশেষে রবিবার (১৭ মে) সন্ধ্যায় হুট করেই বুঝি নিজের অবস্থান জানান দিলেন নাট্যকার নাজিয়া হাসান।

অনুরোধের সুরে এক লাইনে নিজের ফেসবুকে লিখলেন, ‘আমাকে ভাবি ডাকা বন্ধ করুন।’ ব্যাস, মিডিয়ার ইফতারমুখর সন্ধ্যায় যেন আগুন ধরে গেল! ‘ভাবি’ না ডাকার অনুরোধই নয়, সঙ্গে তিনি বদলে দিলেন নিজের ম্যারিটরিয়াল স্ট্যাটাসও- ‘ডিভোর্সড’।

এমন ঘটনার দুই ঘণ্টার মাথায় পুরো বিষয়টি নিয়ে মুখ খুললেন নাজিয়া হাসান। বললেন বিস্তারিত। যার পুরোটাজুড়েই ছিল অভিনেতা অপূর্বকে ঘিরে। এভাবেও বলা যায়, অপূর্বকে দোষারোপ না করার অনুরোধ ছিল নাজিয়ার এই বার্তায়।

নাজিয়ার ভাষায়, ‘অপূর্ব একজন আদর্শ বাবা, প্রেমময় ভাই, দায়িত্বশীল পুত্র এবং একজন ভালো মানুষ।’ তবে স্বামী হিসেবে কেমন ছিলেন- সেটি আর জানাননি তিনি।

অপূর্বর প্রশংসা করতে গিয়ে নাজিয়া বলেন, ‘তিনি মিলিয়ন ফ্যানদের কাছে একজন সুপার ট্যালেন্টেড ব্যক্তি, এটা তিনি নিজেই অর্জন করেছেন। আমার মনে হয় তিনি সেখানেই সবচেয়ে যোগ্য। ফলে তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে নয়, দয়া করে তার অসাধারণ কাজগুলো নিয়ে তাকে বিচার করুন।’

নিজেদের একসঙ্গে না থাকতে পারা প্রসঙ্গে নাজিয়া বলেন, ‘দুর্ভাগ্যক্রমে আমরা অসংখ্য কারণে একসাথে থাকছি না, তবে আমি সবসময় তার সুখি ও সমৃদ্ধ জীবন কামনা করছি।
তিনি আমাকে জীবনের সেরা উপহার দিয়েছেন, তা হলো আমার ছেলে আয়াশ।’

নাজিয়া সমালোচক ও সাংবাদিকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, ‘দয়া করে বিয়েবিচ্ছেদের সিদ্ধান্তের ওপর আমাদের কাউকে বিচার করবেন না। আপনারা সবাই আমাদের সুখে-দুঃখে সবসময় ভালোবেসেছেন, সমর্থন দিয়েছেন। আমরা আশা করি তা অব্যাহত থাকবে।’

ফেসবুকে ক্ষোভ ঝাড়লেন অপূর্ব

ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর সংসার ভেঙে গেছে। স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতির সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে তার। বনিবনা না হওয়ায় ৯ বছরের দাম্পত্য জীবনের বিচ্ছেদ হলো দুজনের। এ খবর নিশ্চিত করেছেন নাজিয়া হাসান অদিতি নিজেই।

রোববার বিকেলে মুঠোফোনে নাজিয়া বলেন, ‘অপূর্বের সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে, এটা সত্য। মানুষের এটা জানা দরকার, জানালাম। এর বেশি কিছুই বলতে চাই না। ব্যক্তিগত বিষয় ব্যক্তিগতই থাকুক।’

এর পরপরই নেটিজেনরা তাকে নিয়ে সমালোচনা শুরু করেন। নাজিয়াকে নিয়েও মন্তব্য করেন অনেকে। এ ছাড়া অপূর্বর জীবনে কোনো (?) এক নারী এসেছেন বলে ৯ বছরের বিয়ে বিচ্ছেদ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন কেউ কেউ। অভিনেত্রী তানজিন তিশার সঙ্গে ছোট পর্দার জনপ্রিয় এ অভিনেতার সম্পর্ক নিয়ে জোর আলোচনা শুরু হয়। জড়ানো হয় আরও কিছু নাম।

এ বিষয়টি নিয়ে বেশ বিরক্ত হয়েছেন অপূর্ব। ফেসবুকে বিষয়টি নিয়ে রাগ ঝেড়েছেন তিনি। রোববার দিবাগত রাত ২টায় সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে বিষয়টি নিয়ে একটি পোস্ট করেন অপূর্ব। সেখানে তিনি লেখেন- ‘ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে গসিপ করা এবং তীর্যক, মিথ্যা বানোয়াট মন্তব্য করে তাদের কষ্ট বাড়িয়ে দেওয়ার মতো খারাপ কাজগুলো থেকে সবাই বিরত থাকবেন এবং এর মধ্যে রসালো কোনো গল্প তৈরি করে সংবাদ করার চেষ্টা করবেন না, প্লিজ।

অত্যন্ত সম্মানের সাথে জানাচ্ছি আমি এবং আমার স্ত্রী অদিতি অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ সমাধানের মধ্যদিয়ে আমাদের সম্পর্কের আইনগত ভাবে ইতি টেনেছি। কোনো সংবাদমাধ্যম এই ব্যাপারটাতে তৃতীয় কাউকে জড়িয়ে কোনো ধরনের ভুল সংবাদ প্রকাশ করলে আমি তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আইনগত ব্যবস্থা নিব। অলরেডি প্রকাশিত কিছু সংবাদের লিংক আমি সংগ্রহ করেছি। এখানে আরও উল্লেখ্য আমি অদিতিকে সম্মান করি এবং আজীবন করবো। সুতরাং কোনোভাবেই অদিতিকে অসম্মান করে তার পাশে অন্য কারও নাম আমি সহ্য করবো না। ভুলে যাবেন না অদিতি এখন আইনগত ভাবে আমার স্ত্রী না থাকলেও সে আমার সন্তানের মা।’

অপূর্ব-নাজিয়ার ছেলের নাম আয়াশ। সে কার কাছে আছে জানতে চাইলে বিষয়টি এড়িয়ে যান অদিতি। তাদের একটি ঘনিষ্ঠসূত্র জানিয়েছে, চলতি বছরের প্রথমদিকে তাদের বিচ্ছেদ ঘটে। এদিকে নাজিয়া ফেসবুকেও বিষয়টি জানান দিয়েছেন। তার প্রোফাইলে রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস বারে ‘ডিভোর্সড’ উল্লেখ করা হয়েছে। এ ছাড়া একটি পোস্টও দিয়েছেন তিনি যেখানে লেখা- আমাকে ‘ভাবী’ ডাকা বন্ধ করুন সবাই!

ডিভোর্সের ব্যাপারে জানতে অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও যোগযোগ সম্ভব হয়নি।

এর আগে অপূর্ব ২০১০ সালের ১৮ আগস্ট ভালোবেসে বিয়ে করেন মডেল-অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে। মাত্র এক মাসের মধ্যে সে সম্পর্কে ফাটল ধরে। ২০১১ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি প্রভার সাথে বিবাহ বিচ্ছেদ করেন। এরপর অপূর্ব একই বছরের ২১ ডিসেম্বর নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেছিলেন।

Share this post

PinIt
izmir escort bursa escort Escort Bayan
scroll to top
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri