buy Instagram followers
kayseri escort samsun escort afyon escort manisa escort mersin escort denizli escort kibris escort rize escort sinop escort usak escort trabzon escort

বাংলাদেশ উপকূলে কতক্ষণ থাকবে সুপার সাইক্লোন ‘আম্পান’ ?

cyclone-1.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(১৮ মে) :: বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ প্রবল গতি সঞ্চার করে সুন্দরবন উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে। মঙ্গলবার শেষ রাত থেকে বুধবার সন্ধ্যা নাগাদ ঘূর্ণিঝড়টি অতিক্রম করতে পারে বাংলাদেশের সুন্দরবন সংলগ্ন উপকূল।

এদিকে চোখ রাঙাচ্ছে সুপার সাইক্লোন ‘আম্পান’। ভয়ংকর রূপে ধেয়ে আসা এ ঘূর্ণিঝড় ২০ মে (বুধবার) খুব ভোর থেকে সন্ধ্যার মধ্যে যে কোনো সময় ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দিঘা থেকে বাংলাদেশের নোয়াখালীর হাতিয়া দ্বীপ পর্যন্ত উপকূলজুড়েই আছড়ে পড়তে পারে।

ইতিমধ্যে এটি এতটাই শক্তি সঞ্চয় করেছে যে, ‘সুপার সাইক্লোনে’ রূপ নিয়েছে এটি। তবে বাংলাদেশ উপকূলে আঘাত হানার সময় এর গতি কিছুটা কমে ‘এক্সট্রিম সিভিয়ার সাইক্লোন’ বা ‘অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড়ে’ রূপ নিতে পারে। এতে ঘূর্ণিঝড়টি ২০০৭ সালের সিডরের মতোই শক্তি নিয়ে আসতে পারে। এমনটাই আভাস দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ ঘূর্ণিঝড়ের বেগ হতে পারে ঘণ্টায় ১৬৫-১৭৫ কিমি। তবে পরিস্থিতি তেমন হলে আম্পানের সর্বোচ্চ বেগ হতে পারে ঘণ্টায় ১৯৫ কিমি পর্যন্ত।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, এই ঘূর্ণিঝড় এখন সুপার সাইক্লোনের চেহারা নিয়ে সমুদ্রের উপরে রয়েছে, যার গতিবেগ ঘণ্টায় ২২০-২৩০ কিমি। কিন্তু আম্পান যখন স্থলভাগের দিকে এগোবে, তখন ঝড়ের বেগ কমবে। অর্থাৎ, তখন আর সুপার সাইক্লোন থাকবে না, এক্সট্রিমলি সিভিয়ার সাইক্লোন হিসেবে আছড়ে পড়বে। সাধারণত, এ ধরনের ঘূর্ণিঝড় স্থলভাগের দিকে যত এগোবে, তত শক্তিক্ষয় হবে।

ভারতের আবহাওয়াবিদ সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, ”সমুদ্রের ওপরে রয়েছে সুপার সাইক্লোন। আম্পানের ক্ষেত্রে, যখন এটি অতিক্রম করবে, তখন এক্সট্রিমলি সিভিয়ার সাইক্লোন হিসেবে ধেয়ে যাবে। ঘূর্ণিঝড়ের বেগ হতে পারে ঘণ্টায় ১৬৫-১৭৫ কিমি। আম্পানের সর্বোচ্চ বেগ হতে পারে ঘণ্টায় ১৯৫ কিমি। ”

মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড় আম্পান সুপার সাইক্লোন পর্যায়ে থাকবে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

এ ব্যাপারে সোমবার রাতে বুয়েটের আইডব্লিউএফএম (পানি ও বন্যা ব্যবস্থাপনা ইন্সটিটিউট)-এর সিনিয়র গবেষক ড. মোহন কুমার দাশ বলেন, ‘আইএমডির তথ্য অনুযায়ী, ঘূর্ণিঝড় আম্পান মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত সুপার সাইক্লোন পর্যায়ে থাকবে।

ভারত মহাসাগরে এপ্রিল ও মে মাসে প্রায় কোন ঘূর্ণিঝড় উৎপন্ন হয়ে বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় বাংলাদেশ, ভারত ও মায়ানমারের উপকূলে আঘাত করেছে।

তিনি জানান, এর আগে এপ্রিলে শুরু হওয়া ঘূর্ণিঝড় ছিল মালা (২০০৬), নার্গিস (২০০৭), বিজলি (২০০৯), মারুথা (২০১৭) ও ফনি (২০১৯)।

আর মে মাসে শুরু এমন ঘূর্ণিঝড় ছিল আকাশ (২০০৭), আইলা (২০০৯), লায়লা (২০১০), ভিয়ারু (২০১৩), রোয়ানু (২০১৬), মোরা (২০১৭)।

বুয়েটের এ সিনিয়র গবেষক আরও বলেন, করোনাভাইরাস মহামারীর এ সময় “শূন্য ক্যাজুয়ালিটি ” পলিসি নির্ধারণ করে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম নিতে হবে। সাধারণ জনগণ যেন সতর্কতা বুঝে, মানে ও স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে সচেতন হয় এটির যথাযথ উদ্যোগ নিতে হবে।

Share this post

PinIt
izmir escort bursa escort Escort Bayan
scroll to top
en English Version bn Bangla Version
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri