buy Instagram followers
kayseri escort samsun escort afyon escort manisa escort mersin escort denizli escort kibris escort rize escort sinop escort usak escort trabzon escort

ভারতের মাটি ছুঁল গেম চেঞ্জার’ রাফালে যুদ্ধবিমান

rafael-5.jpg

কক্সবাংলা ডটকম(২৯ জুলাই) :: অবেশেষে অপেক্ষার অবসান। বিতর্কের রেশ কাটিয়ে বুধবার দুপুর ৩টে ১৫ মিনিটে ভারতের হরিয়ানার আম্বালা বায়ুসেনা ঘাঁটিতে এসে পৌঁছল ‘বিউটি অ্যান্ড বিস্ট’ রাফালে (Rafale Jets) যুদ্ধবিমান। সুদূর ফ্রান্স (France) থেকে সাত হাজার কিলোমিটার পথ পেরিয়ে মাঝ আকাশে প্রযুক্তির ভেলকি দেখিয়ে ভারতের মাটি ছুঁল গেম চেঞ্জার’ মাল্টিরোল ফাইটার এয়ারক্রাফ্টস। আম্বালা সেনাঘাঁটিতে গোল্ডেন অ্যারো স্কোয়াড্রনের অন্তর্ভুক্ত করা হবে। চিনের সঙ্গে সংঘর্ষের আবহে ভারতীয় বায়ুসেনায় রাফালের অন্তর্ভুক্তি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ।

মঙ্গলবার রাতে আবু ধাবিতে থাকা ফ্লান্সের আল ধাফরা ঘাঁটিতে বিশ্রাম নেন পাইলটরা। সেখান থেকে বুধবার সকালে ফের রওনা দেয় অত্যাধুনিক এই যুদ্ধবিমানগুলি। তারপর থেকেই পশ্চিম আরব সাগরে থাকা ভারতীয় নৌবাহিনীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছিল যুদ্ধবিমানগুলির চালকরা। পশ্চিম আরব সাগরে থাকা ভারতীয় রণতরী INS Kolkata’র সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছিল। ভারতের আকাশে ফ্রান্সের বিউটি অ্যান্ড দি বিস্টকে স্বাগত জানায় INS Kolkata-ই। ভারতের আকাশে ৫টি রাফালেকে এসকর্ট করে ভারতে আনল সুখোই।

২০১৬ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর নরেন্দ্র মোদির ক্ষমতায় আসার পর নতুন এক চুক্তিতে ফ্রান্সের কাছ থেকে ৩৬টি রাফাল যুদ্ধবিমান কেনার সিদ্ধান্ত হয়। ৫৯ হাজার কোটি টাকায় ওই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

রাফালকে বলা হয় ‘ফিফথ জেনারেশন’ ফাইটার এয়ারক্রাফট।

এনডিটিভি জানায়, সমরাস্ত্রে ঠাসা রাফাল জেটগুলো ১৫০ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করতে পারবে। অত্যাধুনিক মিসাইল যুক্ত রাফাল ১০০ কিলোমিটার জায়গার মধ্যে ৪৫টি নিশানায় এক সঙ্গে আঘাত হানতে পারে। যুদ্ধবিমানগুলো আকাশ থেকে আকাশে এবং আকাশ থেকে মাটিতে শত্রুর লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করতে সক্ষম।

রাশিয়ার তৈরি সুখোই ফাইটার কেনার ২৩ বছর পরে ভারতীয় বিমান বাহিনীতে পাশ্চাত্যের যুদ্ধ বিমান যুক্ত হলো। বিশ্লেষকরা মনে করছেন, চীন ও পাকিস্তানের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে এই যুদ্ধবিমানগুলো ভারতের বিমান বাহিনীর শক্তি বাড়াবে।

৬০০ কি.মি. ভিতরে ঢুকে ধ্বংসলীলা চালাতে পারে রাফাল!

এতদিন ভারতের কাছে ছিল লং রেঞ্জ মিসাইল স্কাল্প যা ৩০০ কিলোমিটার দূরত্ব পর্যন্ত হানা দিতে পারে। কিন্তু রাফালের শক্তি এতটাই শত্রু শিবিরে ৬০০ কিলোমিটার ঢুকে আঘাত হানার সক্ষমতা আছে তার।রাফালের বিয়ন্ড ভিজুআল রেঞ্জ ১৫০ কিলোমিটারের বেশি। পাকিস্তানের হাতে যেসব যুদ্ধবিমান আছে তার বিভিআর বড়জোড় ৫০ কিলোমিটার।

এয়ার টু এয়ার মিসাইল রাফাল জেটগুলোর অন্যতম ইউএসপি। এর ফলে ১৫০ কিলোমিটার দূরের টার্গেট বিদ্ধ করতে পারবে ভারতীয় বিমানবাহিনী। এছাড়াও রাফালে থাকে এয়ার টু গ্রাউন্ড মিসাইল। এই মিসাইল অন্তত ৩০০ কিলোমিটার দূরত্বে লক্ষ্যভেদ করতে সক্ষম।

১০০ কিলোমিটার জায়গার মধ্যে ৪৫টি নিশানায় এক সঙ্গে আঘাত হানতে পারে রাফাল।

রাফালের এয়ারটু এযার এবং এয়ার টু সারফেস ফায়ারপাওয়ার ৩৭০০ কিলোমিটার।

পাকিস্তান এবং চীনের বিমানবাহিনী যে জেএফ ১৭ এবং জে ২০ যুদ্ধবিমানগুলো ব্যবহার করছে, সেগুলো দিনে এবং রাতে উড়তে এবং যুদ্ধক্ষেত্রে লড়াই চালাতে সক্ষম৷

চীনের দাবি অনুযায়ী, জেএফ ১৭ ফোর্থ জেনারেশন এবং জে ২০ ফিফথ জেনারেশন এয়ারক্রাফট৷ অন্যদিকে রাফালকে বলা হচ্ছে ৪.৫ জেনারেশন এয়ারক্রাফট৷ রাফালের নির্মাণকারী সংস্থা দাসল্ট-এর দাবি, এগুলো omnirole এয়ারক্রাফট৷ অর্থাৎ প্রত্যেকটি মিশনে এই যুদ্ধবিমানকে যে লক্ষ্যে কাজে লাগানো হয়, প্রয়োজনে রাফাল তার থেকেও অতিরিক্ত করার ক্ষমতা রাখে৷

তবে যুদ্ধবিমান যতই অত্যাধুনিক এবং ক্ষমতাসম্পন্ন হোক না কেন, তার সাফল্য নির্ভর করে অস্ত্রশস্ত্র এবং রাডারের উপর৷

ভারতীয় সামরিক বিশেষজ্ঞদের মতে, রাফাল যে ধরনের মিসাইল এবং অস্ত্রশস্ত্র বহনে সক্ষম, তা পৃথিবীর মধ্যে অন্যতম সেরা এবং সর্বাধুনিক৷ রাফাল যে ধরনের METEOR এয়ার টু এয়ার লং রেঞ্জ মিসাইল ব্যবহার করে, তা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় আকাশে যুদ্ধের গতি প্রকৃতি আমূল বদলে দেবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

Share this post

PinIt
izmir escort bursa escort Escort Bayan
scroll to top
en English Version bn Bangla Version
error: কপি করা নিষেধ !!
bahis siteleri